যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে ১৯৭৩ জনের মৃত্যু

করোনা ভাইরাসে গতকাল বুধবার যুক্তরাষ্ট্রে ১ হাজার ৯৭৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন। ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর কোনো দেশে একদিনে এত মানুষেরস মুত্যু হয়নি। এর আগে গত মঙ্গলবারও যুক্তরাষ্ট্রে ১ হাজার ৯৩৯ জন করোনায় প্রাণ হারান।

যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, বিবিসি ও বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে। তাতে বলা হচ্ছে। টানা দ্বিতীয়দিনের মতো করোনায় সর্বোচ্চ প্রাণহানির রেকর্ড হলো যুক্তরাষ্ট্রে। এ নিয়ে দেশটির মৃতের মোট সংখ্যা এখন ১৪ হাজার ৭৮৮।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত দেশটির জনবহুল নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য। শুধু নিউইয়র্কে করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এখন ১ লাখ ৫০ হাজারের কাছাকাছি। আক্রান্তদের মধ্যে ৬ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে সেখানে।

এদিকে বিশ্বে এখন পর্যন্ত যে ১৫ লাখ মানুষকে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে এরমধ্যে আক্রান্তের দিক দিয়ে সবার উপরের স্থানটিও যুক্তরাষ্ট্রের; দেশটির সোয়া ৪ লাখের বেশি মানুষ এখন করোনায় আক্রান্ত। আক্রান্তদের মধ্যে মাত্র ২২ হাজারের বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, কোভিড-১৯ রোগে ১৫ লাখ আক্রান্তের মধ্যে ৩ লাখ ২৯ হাজার সুস্থ হয়েছেন। গোটা বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৮৮ হাজারের বেশি মানুষ। অবশ্য এই হিসাব দেশগুলোর সরকারিভাবে দেওয়া।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা এর চেয়ে বেশি। এদিকে গতকাল যুক্তরাষ্ট্রে ১ হাজার ৯৭৩ জন করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন; যা একদিনে বিশ্বে সর্বোচ্চ। আক্রান্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা স্পেনে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৪৮ হাজারের বেশি। ইতালিতে ১ লাখ ৪০ হাজার ছুঁই ছুঁই।

এছাড়া ১ লাখ ১২ হাজার এবং ১ লাখ ১৩ হাজার আক্রান্ত হয়েছে যথাক্রমে জার্মানি এবং ফ্রান্সে। করোনাভাইরাসে ইতালিতে মৃতের সংখ্যা ১৭ হাজার ৬৬৯ জন। যুক্তরাষ্ট্র ও স্পেনে যথাক্রমে ১৪ হাজার ৭৮৮ এবং ১৪ হাজার ৭৯২ জন। ফ্রান্সে ১০ হাজার ৮৮৯, যুক্তরাজ্যে প্রাণহানি ৭ হাজার ৯৭।

Related Posts

One thought on “যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে ১৯৭৩ জনের মৃত্যু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *