Bijoysangbad | শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ছাত্রলীগকে নিষিদ্ধের দাবি - Bijoysangbad

» শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ছাত্রলীগকে নিষিদ্ধের দাবি

Published: 08. Oct. 2019 | Tuesday

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের বর্বরোচিত ও নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ এবং তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী শিক্ষকদের সংগঠন (সাদা দল)।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সাদা দলের (ভারপ্রাপ্ত) আহবায়ক অধ্যাপক ড. মোহা. এনামুল হক স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, বুয়েটে এ ধরণের ঘটনা সভ্য সমাজে ঘটতে পারে না। এটা কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায় না। সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ গত এক দশক ধরে ক্ষমতাসীন মহলের আস্কারায় সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে চরম নৈরাজ্য সৃষ্টি করে আসছে। সারা দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর হলগুলো তারা মিনি অস্ত্রাগার বানিয়ে জঘন্য অপকর্ম করে চলেছে। ছাত্র-শিক্ষক কেউই তাদের উগ্র ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের হাত থেকে রেহাই পায়নি। তাদের অপরাধের কোন সাজা হওয়া দূরের কথা, বরং বিভিন্ন সময়ে সরকারী শীর্ষ নেতৃবৃন্দের পরোক্ষ সমর্থন তারা পেয়ে আসছে। ফলে ছাত্রলীগ আজ দানবে পরিণত হয়ে এ ধরণের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটানোর সাহস পেয়েছে। সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ছাত্রলীগকে অবিলম্বে নিষিদ্ধের দাবী জানিয়ে শিক্ষকবৃন্দ বলেন, অন্যথায় আবরারদের মতো মেধাবী, সচেতন ভবিষ্যত নাগরিকদের ওরা এভাবেই শেষ করে দিবে।

বিবৃতিতে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ আবরার ফাহাদের শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। তাদের দাবি অনতিবিলম্বে এ জঘন্য ঘটনার জন্য দায়ী সস্ত্রাসীদের সকলকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

বিবৃতিতে স্বক্ষরকারী শিক্ষকবৃন্দের মধ্যে রয়েছেন: অধ্যাপক ড. সি. এম. মোস্তফা, অধ্যাপক ড. কে বি এম মাহবুবুর রহমান, অধ্যাপক ড. ময়েজুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মো. আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক ড. মো. সাইফুল ইসলাম ফারুকী, অধ্যাপক ড. মো. বেলাল হোসেন, অধ্যাপক ড. হাবীবুর রহমান, অধ্যাপক ড. গোলাম সাদিক, অধ্যাপক ড. রেজাউল করিম, অধ্যাপক ড. ফজলুল হক, অধ্যাপক ড. দিল আরা হোসেন, অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ, অধ্যাপক ড. মো. শামসুজ্জোহা এছামী, অধ্যাপক ড. সৈয়দ সরওয়ার জাহান লিটন, অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আলীম, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলী, অধ্যাপক ড. শাহনাজ পারভীন, ড. মোহা. মনিরুল হক, হাবিবুল ইসলাম প্রমুখ।